২১ বছর বয়সে ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়াটা তো গুণ নয়, বরং দোষ: আবরার প্রসঙ্গে তসলিমা

Spread the love

ডেস্ক রিপোর্ট:

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে গু’লশানে হলি আ’র্টিজান হা’মলায় অ’ভিযু’ক্ত ও নিহ’ত নিরবাস ইসলামের সঙ্গে তু’লনা করলেন লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের নি’র্যাতনে নিহ’ত আবরারকে নিয়ে ফেইসবুকে বৃহস্পতিবার সকালে তসলিমা একটি পোস্ট দেন। সেখানে তিনি আরও লেখেন, “তাকে যারা পি’টিয়েছিল, আমার বিশ্বাস, মে’রে ফেলার উদ্দেশে পে’টায়নি। কিন্তু মা’থায় আ’ঘাত লে’গেছে, ম’রে গেছে।”

আবরারকে বারবার ‘আরবাব’ উল্লেখ করে তসলিমা লেখেন, “অফিসিয়ালি শি’বির না করলেও শি’বিরের মতো চাল চ’লন আর চি’ন্তা ভা’বনা বা’নিয়েছিল।”

তার পুরো লেখাটি এমন- “আরবাব ফাহাদের গু’ণের বর্ণনা করতে গি’য়ে আত্মীয় স্বজন, বন্ধু বান্ধব, পা’ড়া প’ড়শি, চে’না পরিচিত সবাই বলছেন আরবাব মেধাবী ছিল এবং আরবাব ৫ ওয়া’ক্ত নামাজ পড়তো। মেধাবী হওয়াটা নি’শ্চয়ই গুণ কি’ন্তু ২১ বছর বয়সে ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়াটা তো গুণ নয়, ব’রং দো’ষ। বিজ্ঞানের ছাত্র হয়ে ব্র’হ্মাণ্ডে’র উ’ৎপত্তি, বি’বর্তনের প্র’ক্রিয়া সম্পর্কে কোনও ধা’রণা নেই! সাত আকাশের ওপর এক স’র্বশ’ক্তিমান বসে আছে, সে ছ’দিনে আ’সমান জ’মিন বানিয়েছে, আদম হাওয়াকেও মাটি দিয়ে বানিয়েছে, কথা শো’নেনি বলে জ’মিনে ফে’লে দি’য়েছে, কেউ একজন ডানাওয়ালা ঘো’ড়ায় চ’ড়ে তাকে এবং তার বানানো স্বর্গ ন’রক দেখে এসেছে — এসব আ’জগুবি অ’বিজ্ঞান আর হা’স্যকর গা’ল গ’প্প কোনও বু’দ্ধিমান কেউ বিশ্বাস করতে পারে? আরবাব প’ড়তো হয়তো বিজ্ঞানের বই, পরীক্ষা পা’শের জন্য প’ড়তো। তার বিজ্ঞান ম’নস্কতা ছিল না। নি’জস্ব চি’ন্তার শ’ক্তি ছিল না। একে আমি পড়ুয়া বলতে পারি, মেধাবী বলবো না। আরবাব ছিল নি’ব্রাস ইসলামদের মতো। একবিংশ শতাব্দির আধুনিক বিশ্ববিদ্যালয়ে প’ড়তো, কি’ন্তু মাথায় চোদ্দশ বছর আ’গের অ’বিজ্ঞান আর অ’নাধুনিকতা।

আরবাব অ’ফিসিয়ালি শি’বির না করলেও শি’বিরের মতো চাল চ’লন আর চি’ন্তা ভা’বনা বা’নিয়েছিল। তাতে কী! শি’বিরদেরও বা*চার অ’ধিকার আছে। তাকে যারা পি’টিয়েছিল, আমার বিশ্বাস, মে’রে ফে’লার উদ্দেশে পে’টায়নি। কিন্তু মা’থায় আ’ঘাত লে’গেছে, ম’রে গে’ছে। যারা পি’টিয়েছিল, তাদের শা’স্তি অ’বশ্যই হতে হবে। গ্রে’ফতার হয়েছে অ’লরেডি।”


Leave a Comment