১লা এপ্রিল থেকে চলছে স্বপ্নপূরণের “৫টাকার কেনাকাটা”

Spread the love

স্টাফ রিপোর্টারঃ

বর্তমান বিশ্ব থেমে গেছে করনা ভাইরাসের সংক্রমণে, সারা দেশে এই সময়ে চলছে লকডাউন বা সামাজিক অবরুদ্বকরন,সেই সাথে সামাজিক দুরত্ব বজার রাখা হচ্ছে যাতে এই মহামারি বাংলাদেশে ছড়াতে না পারে,এতে কর্মীহীন হয়ে পরেছে হাজার হাজার মানুষ,তাদের দেখা দিয়েছে খাদ্য সংকট,ঝালকাঠির কৃষ্ণকাঠিতে একটি সামাজিক সেচ্চাসেবী সংগঠন স্বপ্নপূরণ সমাজকল্যাণ সংস্থা মধ্য ভিত্ত শ্রেনীর জন্য ৫টাকার কেনা কাটা নামে একটি ব্যাতিক্রমি খাদ্য বিতরন কর্মসূচি পালন করছে,এই কর্মসূচি মুল বিষয় হল যারা ত্রানের জন্য কোথাও হাত পাততে পারে না কিংবা ত্রান নিলে সামাজিক সম্মানহানির হয় তাদের জন্য বিশেষ কেনাকাটা একটি টোকেন মাত্র ৫টাকা দিয়ে কিনবে মধ্যভিত্ত ব্যাক্তি এবং সংগঠনের নির্দিষ্ট করা দোকানে সেই টোকেন জমা দিয়ে মধ্যভিত্ত ক্রেতা পাচ্ছে সর্বোচ্চ ১০কেজি ও সর্বনিম্ন ৫কেজি করে চাল,সর্বোচ্চ ৪কেজি ও সর্বনিম্ন ২কেজি আলু। ১কেজি ডাল,১লিঃতেল,১কেজি পিয়াজ,১টি সাবান,১টি মাক্স,ও আধাকেজি লবন। সংগঠনের সভাপতি রিয়াজ খান বলেন দেশের এই ক্রান্তি লগ্নে সাধারণ মানুষের কাজ কর্ম বন্দ্ব থাকার কারনে অনেক মধ্যভিত্ত পরিবার খাদ্য সংকটে পরে যারা সামাজিক অবস্থানের কারনে কারো কাছে হাত পাততে পারেন না,এবং আত্মসম্মানবোধ এর কারনো ত্রান দিলে তা লাইনে দাঁড়িয়ে নিতে ও পারছেন না,তাদের ঘরে খাদ্য পৌছে দেয়ার জন্য আমাদের এই ব্যাতিক্রম ধর্মী খাদ্য বিতরন কর্মসূচি হাতে নিয়েছি, তিনি আরো জানান যে,উক্ত সংগঠনের সদস্যবৃন্দের উদ্দ্যোগে আমারা কাজ শুরু করে প্রথমে ২০টি পরিবার তারপর উপদেস্টা মন্ডলির সদস্য সাবেক উপজেলা পরিষধ চেয়ারম্যান সুলতান হোসেন খান,ও বিশিষ্ট কবি সাধাবাবা খ্যাত আমিনুল ইসলাম লিটন তালুকদার সহ আরো অনেক শুভাকাঙ্ক্ষী ও মানবিক ভাইদের সহযোগিতায় এখন পর্জন্ত ১৬৮পরিবারের মধ্যে ১১১৩কেজি চাল, ৩৪০কেজি আলু,১৬৮কেজি ডাল,৫০লিঃ তেল,৬৮কেজি লবন,৬৮.কেজি পিয়াজ ১৬৮টি সাবান,ও ৪৫০টি মাক্স বিনামূল্য বিতরন করেছেন। যারা সহায়তা করে যাচ্ছে এই কর্মসূচি এগিয়ে নিতে তাদের প্রতি সশ্রদ্ব কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে রিয়াজ খান বলেন,তারা সহায়তা না করলে,এই কর্মসূচি কোন ভাবেই এগিয়ে নিতে পারতাম না। এবং আমার সংগঠনে এর সদস্য সুমন সমাদ্দার, হিরা, জামাল হোসেন,নান্নু হাং,নুরইসলাম,সোহেল রান,সিরাজ,আল আমিন,সহ সকল দের প্রচেস্টায় এর পূর্বে আমরা বিনামূল্যে মাক্স ও সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরন এবং শহরে বিভিন্ন মসজিদের ওযু খানার প্রতি ট্যাবে সাবান বেধে দিয়েছি এবং অনেক মসজিদে সচেতনার জন্য আলোচনা করেছি। মানুষ মানুষের জন্য জীবন জিবনের জন্য। সবাইকে বাসায় থাকার অনুরোধ জানান এই সংগঠন এর পক্ষ থেকে।

Leave a Comment