শিক্ষক বদলিতে ঘুষ: দেশব্যাপি অভিযানে দুদক

Spread the love

শিক্ষকদের পেনশন প্রদানে ঘুষ, দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগে বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরোতে (ব্যানবেইস) অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এনফোর্সমেন্ট টিম। এ ছাড়া প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলিতে ঘুষ–বাণিজ্যের অভিযোগ পেয়ে তিন জেলায় অভিযান চালানো হয়।|

আজ রোববার এসব অভিযান পরিচালনা করা হয় বলে দুদকের জনসংযোগ বিভাগ জানিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ব্যানবেইসে শিক্ষকদের অবসরোত্তর বিল পাস করানোর জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হয়- এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক জেসমিন আক্তারের নেতৃত্বে একটি টিম রোববার এ অভিযান চালায়।

এ বিষয়ে দুদকের দলটি অবসর সুবিধা বোর্ডের পরিচালক মো. খসরুল আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, পেনশন বিল অনুমোদন কমিটির সাবেক সদস্যসচিব শরীফ আহমদ সাদী এ বছরের ১২ জানুয়ারি অবসরে যাওয়ার পর এখন পর্যন্ত সচিব নিয়োগ দেওয়া হয়নি। এ কারণে কোনো বিলই পাস হচ্ছে না।

সেখানে উপস্থিত শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে দুদক দলটি জানতে পারে, সাবেক সদস্যসচিবের ব্যক্তিগত সহকারী মারুফ অবসর ভাতাভোগীদের কাছ থেকে দ্রুত বিল পাস করিয়ে দেওয়ার আশ্বাসে বিভিন্ন অনৈতিক আর্থিক সুবিধা নেন। দুদক দলের পর্যবেক্ষণকে আমলে নিয়ে ওই অফিস সহকারীকে লিখিতভাবে সতর্ক করা হয়।

এদিকে দেশব্যাপী প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলিতে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগে দুদকের এনফোর্সমেন্ট টিম রাজশাহী, পাবনা ও সিলেট কার্যালয় হতে যথাক্রমে নওগাঁ, পাবনা ও সিলেট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে রোববার অভিযান পরিচালনা করে।

দুদক টিম শিক্ষক বদলির ক্ষেত্রে ব্যাপক অনিয়মের প্রাথমিক সত্যতা পায় এবং প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জব্দ করে। সব কাগজপত্র যাচাই করে টিম কমিশনে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন পেশ করবে।

Leave a Comment