নলছিটিতে দেশ ইটভাটা মালিকের বিরুদ্ধে ৬৩ লাখ টাকা আত্নসাতের অভিযোগ

Spread the love

ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধিঃ নলছিটিতে একটি ইটভাটা মালিকের বিরুদ্ধে অগ্রীম ইট বিক্রির কথা বলে প্রতারণার মাধ্যমে ৬৩ লাখ টাকা আত্নসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ক্ষতিগ্রস্তরা রবিবার বেলা ১২টায় ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার সুজাবাদ ‘দেশ’ নামে একটি ইটভাটার সামনে চুক্তিপত্র হাতে নিয়ে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করেন। মানববন্ধনে মগড় ইউনিয়নের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেয়। তাঁরা টাকা আতœসাতকারী ইটভাটার মালিক নাহিদ সেরনিয়াবাতের বিচার দাবি করেন।
মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করেন, নলছিটি উপজেলার সুজাবাদ গ্রামে জাহিদ হাসানের ইটভাটার মালিকানার অংশিদার হয়ে বরিশালের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নাহিদ সেরনিয়াবাদ স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে অগ্রীম ইট বিক্রির কথা বলে ৬৩ লাখ টাকা নেন। পরে তিনি পাওনাদারদের ইট না দিয়ে হয়রানি করছেন। এমনকি তাদের কাছ থেকে নেওয়া টাকাও ফেরত দিচ্ছেন না নাহিদ সেরনিয়াবাদ। বিষয়টি নিয়ে ঝালকাঠির পুলিশ সুপার, নলছিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও মগড় ইউনিয়ন পরিষদে ক্ষতিগ্রস্তরা অভিযোগ করেন। নাহিদ সেরনিয়াবাত বর্তমানে ইটভাটায় যাতায়াত বন্ধ করে দেওয়ায় ভুক্তভোগিরা দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। তাঁরা ইটের জন্য দেওয়া টাকাগুলো ফেরত এবং নাহিদ সেরনিয়াবাতের প্রতারণার বিচার দাবি করেছেন। মানববন্ধনে বক্তব্য দেন স্থানীয় বাসিন্দা মোসলেম আলী, লেনিন ইসলাম, পলাশ শরীফ, সুজন খান, শাহীন আজাদ, শাহ নেওয়াজ খান জাহাঙ্গীর, জসিম উদ্দিন।

এ ব্যাপারে ইট ভাটার মালিক নাহিদ সেরনিয়াবাত বলেন, আমি নিজে ইটের টাকা হাতেও ধরিনি। ম্যানেজারের কাছে টাকা দিয়েছেন, আবার ইটও তার কাছ থেকে নিয়ে যাচ্ছেন। যারা টাকা দিয়েছেন, তাদের মধ্যে অনেকের ইট দেওয়া হয়েছে। যারা বাকি আছে, ইট পোড়া হয়ে গেলে তাদেরকেও দেওয়া হবে। কারো টাকা মার যাবে না।

Leave a Comment