নগরীতে ছিনতাইকারী কমলা জনতার হাতে আটক, ছেড়ে দিলো পুলিশ

Spread the love

ডেস্ক রিপোটঃ সিলেটে রয়েছে নারী পকেটমারদের একটি শক্তিশালী চক্র। সারা বছরই এদের তৎপরতা থাকলেও ঈদ, পূজা কিংবা পহেলা বৈশাখের উৎসবে এরা সবচেয়ে বেশি সক্রিয় হয়ে ওঠে। মানুষের ভিড়ে মিশে কৌশলে হাতিয়ে নেয় টাকা, মোবাইল ফোন কিংবা মূল্যবান অন্য কোনোও জিনিস। নারী হওয়ায় এদের দিকে সন্দেহের তীর থাকে না, যার ফলে এরা সহজেই অন্য নারীদের কাছাকাছি যেতে পারে।

সূত্র বলছে, গতকাল রোববার বিকাল ৩টায় নারী পকেটমার চক্রের সক্রিয় সদস্য কমলাকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে দিয়েছিল জনতা। কিন্তু থানায় রাখা, তার বিরুদ্ধে মামলা দেয়া কিংবা প্রসিকিউশনে আদালতে পাঠানো কিছুই করা হয়নি। বন্দরবাজার ফাঁড়ির পুলিশের সাথে কমলার সখ্যতা রয়েছে। প্রতিদিন কমলার সাথে পুলিশের রহম দহম হয়ে থাকে। যার ফলে জনগনের হাত থেকে নারী ছিনতাইকারী কমলাকে আদালতে পাঠানোর কথা বলে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ঠিকই তাকে ছেড়ে দেওয়া। ‘ম্যানেজ’ করে তিনি আগেই ছাড়া পেয়ে গেছেন।

কমলা ছাড়া পেয়ে এক সাংবাদিককে কল দিয়ে বলেন, আমার বিরুদ্ধে নিউজ করলো কে? আমি কখন আটক হলাম। বিষয়টি শুনে তখন ওই সাংবাদিকের লজ্জা করছিলো। কারণ একটা নির্দোষ মানুষের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করা আসলে উচিত হয়নি। পরে যখন জানা গেল, কমলার আসল কাহিনী, বঝা গেছে বাংলা সিনেমাকেও হার মানাবে।

একটি সূত্রে জানা গেছে, কমলার বিরুদ্ধে এই পর্যন্ত ২০টির অধিক মামলা চলমান রয়েছে। পুলিশের কিছু অসাধু সদস্যরা এই কমলাকে সেল্টার দিয়ে নিজেদের ফায়দা হাসিল করে থাকে। ছিনতাই করে কোটিপতি কমলা পিছনে অনেক কাহিনী।

সচেতন নগরবাসী এই নারী ছিনতাইকারী কমলা ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের হস্থক্ষেপ কামনা করেন।

Leave a Comment