নওগাঁর মহাদেবপুরে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে পিতা ও পুত্রের মৃত্যু হয়েছে। রবিবার রাতে উপজেলার উত্তরগ্রাম ইউনিয়নের দরিয়াপুর গ্রামে এ মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনাটি ঘটেছে। নিহতরা হলেন, উপজেলার সদরের শিবগঞ্জ এলাকার অরুন অরুন চন্দ্র কুন্ডু (৬৫) ও তার পুত্র চন্দন কুমার কুন্ডু (২৫)।

Spread the love

ডেস্ক রিপোটঃ জানা গেছে, গত কদিন ধরে উপজেলায় প্রচণ্ড তাপদাহ ও ভ্যাপসা গরমে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। এ তাপদাহের মধ্যে ওই দিন সন্ধ্যায় এ গ্রামের অরুন চন্দ্র কুন্ডু ও চন্দন কুমার কুন্ডু তাদের উপজেলার সদরের শিবগঞ্জ মোড়স্থ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের বনভোজনে খাওয়া-দাওয়া করে। এরপর বরাবরের মতো নিজ বাড়িতে যায়।

বাড়ি যাওয়ার পর পিতা-পুত্র অসুস্থ হয়ে পড়ে। রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত পাতলা পায়খানা ও বমি নিয়ন্ত্রণ না হওয়ায় প্রতিবেশীরা তাদের দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে অরুন চন্দ্র কুন্ডু চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানে মারা যায়।

অপরদিকে চন্দন কুমার কুন্ডুর অবস্থার অবনতি হলে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিসিৎসাধীন অবস্থায় চন্দন কুমার কুন্ডু রাত ৩টার দিকে মারা যায়।

মহাদেবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. দেবাশীস বিশ্বাস জানান, তাপদাহ ও ভ্যাপসা গরমে অসুস্থ হয়ে পিতা-পুত্রের একাধিকবার পাতলা পায়খানা ও একাধিকবার বমির ঘটনা ঘটে। এতে করে তারা উভয় অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তির পর পিতা অরুন কুন্ডু মহাদেবপুরে এবং পুত্র চন্দন কুন্ডু রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

আরও পড়ুনঃ পানির জন্য পাড়ি দিতে হয় ২ কিলোমিটার পথ

মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন নিহতদের মরদেহ দাহ করা হয়েছে।

Leave a Comment