ঝালকাঠির আলোচিত সেই দরবেশ বিপ্লব’র কীর্তি ধর্ষিতার পরিবার নিখোঁজ

Spread the love

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: আলোচিত ঝালকাঠির সেই দরবেশ বিপ্লব’র কীর্তি নিখোঁজ ধর্ষনের শিকার কিশোরী’র পরিবার। জনমনে প্রশ্ন উঠেছে গৃহপরিচারিকা কিশোরীর ধর্ষনের ভিডিও ফুটেজ ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে কয়েক মাস যাবৎ ধর্ষন করেন এখলাছুর রহমান ওরফে বিপ্লব দরবেশ(৪৫)। সেই ধর্ষিতার পরিবার ঝালকাঠি প্রেট্রোল পাম্প এলাকায় ভাড়া করা বাসায় থাকতেন। কিন্তু বিপ্লব দরবেশ ভাড়া করা গুন্ডা বাহিনী দিয়ে অনত্র সরিয়ে ফেলেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।ঝালকাঠি শহরের বাসিন্ধারা জানেন, ধর্ষিতার পরিবার সদর উপজেলার পোনাবালিয়া ইউনিয়নের কোন এক গ্রামে অবস্থান করছেন। আসল কথা হচ্ছে ডাহা মিথ্যা। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ধর্ষনের শিকার কিশোরী এবং তাঁর দাদি কখনই গ্রামের বাড়ীতে যাননি।তাহলে পরিবারটি গেল কোথায়। ধর্ষনের ঘটনা জানাজানি হলে পরিবারকে নিঃচিহ্ন করে ফেলবে বলে হুমকি দিয়েছিলো বিপ্লব দরবেশ,জানিয়েছিলেন ধর্ষিতার দাদি। ভয় ভিতি দেখিয়ে স্বীকারোক্তি নিয়েছিল গুন্ডারা,ধর্ষিতার পরিবার থেকে। আসলেই কি ত্রিশ হাজার টাকা দিয়েছিল কিশোরীর পরিবারকে।স্থানীয়রা জানান, বিপ্লব দরবেশর প্রায় দুই লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে।জনমনে প্রশ্ন ধর্ষিতার পরিবার তাহলে ত্রিশ হাজার টাকা পাবেন কেন। থলের বিড়াল বেড়িয়ে এসেছে। বিপ্লব দরবেশ ধর্ষিতা কিশোরী ও দাদিকে নিখোঁজ করে ফেলেছেন। এ রকম ঘটনা ইতিপুর্বে আরও করেছেন। এই বিপ্লব দরবেশ ইতিপুর্বে আরও পাচঁটি নারীকে ধর্ষন করেন। তার জলজ্যান্ত প্রমান স্থানীয় ঝালকাঠি বাসি।তার চিহ্নিত কোন ব্যবসা নেই। বর্তমানে ঝালকাঠি বাস মালিক সমিতিতে দুটো বাস গাড়ী রয়েছে। ইয়াবা ব্যবসায়ীদের কাছে টাকা খাটানোই তার মূল ব্যবসা।কয়েকমাস আগে ঝালকাঠি বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের অফিস থেকে একশত পিচ ইয়াবাসহ শাহজাহান মল্লিক আটক হয়। তখন বিপ্লব দরবেশসহ কয়েকজন প্রায় দুই মাস পালাতক ছিলেন। এখনও বিপ্লব দরবেশ গা ঢাকা দিযে আছেন। ঝালকাটি সদর থানা অফিসার্স ইনচাজ সোনিত কুমার গায়েন জানান, কোন অভিযোগ কারি পাওয়া যায়নি, তাই কোন মামলা নেওয়া হয়নি। তাহলে প্রশ্ন হলো পরিবারটি গেল কোথায়।সচেতন মহলের দাবি পরিবারটি আসলেই পালিয়ে বেড়াচ্ছে না নিখোজ রয়েছে, নাকি বিপ্লব দরবেশ গুম করে ফেলেছে।

Leave a Comment