ঝালকাঠিতে সহকারি শিক্ষকের হাতে প্রধান শিক্ষক লাঞ্চিত

Spread the love

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠিতে সহকারি শিক্ষক আল-মামুনের হাতে প্রধান শিক্ষক আলী হায়দার লাঞ্চিত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে ঝালকাঠি পৌরসভা কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটেছে।এ ঘটনা নিয়ে ঝালকাঠি উপজেলা নিবার্চন কমিশন কার্যালয়ে অভিযোগ করেন, প্রধান শিক্ষক আলী হায়দার। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, প্রধান শিক্ষক আলী হায়দার এবং সহকারি শিক্ষক আল-মামুন ঝালকাঠি পৌরসভায় ভোটার তালিকা হালনাগাদ করনের কাজে যুক্ত রয়েছেন। আলী হায়দার সুপারভাইজার পদে ও আল-মামুন তথ্যসংগ্রহকারি পদে কর্মরত আছেন। জানা যায়, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সহকারি শিক্ষক আল মামুন প্রধান শিক্ষক আলী হায়দারের সার্টের কলার ধরে থাপ্পর মারতে উদ্ধ্যত হন, আল-মামুন। কিল ঘুসি মারতে চায়, হুমকি দিয়ে মামুন জানায়, তোকে দেখিয়ে দেব,ইত্যাদি ইত্যাদি।পরে অনান্য শিক্ষকদের হস্তক্ষেপে লাঞ্চনার ঘটনাটি এগোয়নি। তবে প্রধান শিক্ষক আলী হায়দার শতাধিক লোকজনের মাঝে লজ্জায় ও ক্ষোভে কেঁদে ফেলেন। আর তখনই বিষয়টি হৃদয়বিদারক ঘটনার দিকে মোড় নেয়। যার ফলে উপস্থিত শিক্ষকরা দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করেন। কয়েকশত লোকজনের সামনে সহকারি শিক্ষকের হাতে প্রধান শিক্ষক লাঞ্চিত হয়েছে বিষয়টি নিয়ে শিক্ষক সমাজে তোলপাড় শুরু হয়েছে।আল মামুনের অপসারনের দাবি জানিয়েছেন একাধিক শিক্ষকরা। নাম প্রকাশ্যে একাধিক জানান, শেষবার পোনাবালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনে এই সহকারি শিক্ষক আল-মামুন, বেতলোচ সরকারি প্রা:মি: বি: এর ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক রুহুল আমিনকে কে মারধর করেছিলেন।এ বিষয়ে সহকারি শিক্ষক আল-মামুন মুঠোফোনে ঘটনার সত্যতা অস্বিকার করেন।এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসার শারমিন আপরোজ মুঠোফোনে জানান, বিষয়টি মিটমাট করে ফেলা হয়েছে। প্রধান শিক্ষক আলী হায়দার জানান,উপজেলা নির্বাচন অফিসার বিষয়টি ন্যায় বিচার করবেন বলে জানিয়েছেন॥

Leave a Comment