চরে আটকা চরমোনাইয়ের মাহফিলগামী লঞ্চ, খাবার সংকটে ১৭শ যাত্রী

Spread the love

ডেস্ক রিপোর্ট /

বরিশালের হিজলা উপজেলা সংলগ্ন মেঘনা নদীর মিয়ার চরে চরমোনাইয়ের মাহফিলগামী একটি যাত্রীবাহী লঞ্চ আটকা পড়েছে। মঙ্গলবার ভোর ৪টা থেকে য় ১৭শ যাত্রী নিয়ে লঞ্চটি ডুবচরে আটকে রয়েছে। দীর্ঘক্ষণ আটকা থাকায় লঞ্চে অবস্থানরত যাত্রীরা তীব্র খাবার সংকটে পড়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত লঞ্চটি কাত হয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় পড়ে আছে।

পার্শ্ববর্তী উপজেলা মেহেন্দীগঞ্জের কালিগঞ্জ নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আ. রাজ্জাক জানিয়েছেন, কাত হয়ে আটকে থাকা লঞ্চটি উদ্ধারের আপাতত কোনো সম্ভাবনা নেই। জনমানুষ শূন্য ওই এলাকায় লঞ্চটিতে অবস্থানরত যাত্রীদের মধ্যে তীব্র খাবার সংকট দেখা দিয়েছে। ভেতরে ক্যান্টিনে দ্বিগুণ দামে খাবার বিক্রি হচ্ছে। যাত্রীদের উদ্ধারে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সহায়তা চেয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। ইনচার্জ এসআই আ. রাজ্জাক বলেন, এমভি কাজল-৭ নামে লঞ্চটি সোমবার (২৪ ফেব্রয়ারি) বিকালে আশুগঞ্জের শিববাড়িয়া থেকে ১৭শ যাত্রী নিয়ে রওনা হয়। এরপর মঙ্গলবার ভোর ৪টায় মেঘনা নদীর হিজলা উপজেলার ধুলখোলা ইউনিয়নের মিয়ার চরের ৯ নম্বর মাছ ঘাটের সামনে ডুবচরে আটকা পড়ে।

এসআই রাজ্জাক আরও বলেন, লঞ্চটির অদূরে আরও একটি লঞ্চ চরে আটকে পড়েছে। তবে অন্ধকারের কারণে সেটির সম্পর্কে তথ্য নেওয়া যাচ্ছে না। আশেপাশে কোনো জনবসতিও নেই।

তিনি লঞ্চের মালিক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে জেনেছেন, ঢাকা থেকে ফারহান কোম্পানির ২টি লঞ্চ আসছে। এ দুটি লঞ্চ আটকা পড়া যাত্রীদের উদ্ধার করবে।

লঞ্চের যাত্রী মো. শরিফ মুঠোফোনে জানান, তারা চরমোনাইয়ের মাহফিলে যাওয়ার জন্য রওনা দিয়েছেন। কিন্তু দীর্ঘ সময় আটকে পড়ায় চরম বিপাকে পড়েছেন তারা।

Leave a Comment