কিশোরগঞ্জে জঙ্গী হামলায় আত্মোৎসর্গকারীদের স্মৃতির প্রতি জেলা পুলিশের শ্রদ্ধা

Spread the love

ইমরান হোসেন, কিশোরগঞ্জ:

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়ায় ঈদের দিনে জঙ্গি হামলার চার বছর আজ। জঙ্গীদের হামলায় আত্মোৎসর্গকারীদের দুই পুলিশ সদস্য জহিরুল ইসলাম ও আনছারুল হক এবং স্থানীয় গৃহবধূ ঝর্ণা রানী ভৌমিকের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়েছেন কিশোরগঞ্জ জেলা পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা। মঙ্গলবার ৭(জুলাই) দুপুরে শোলাকিয়ায় জঙ্গী হামলা স্থলে অস্থায়ী বিদীতে পুস্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জেলা পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএমসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম বলেন, এটি একটি জগন্য হামলা। শোলাকিয়ার লাখো মুসুল্লিতে হত্যা করতেই এই হামলা চালানো হয়েছিল। পুলিশ জীবন দিয়ে সে হামলা রুখে দিয়েছে। তিনি এ মামলায় জড়িতদের ফাঁসির দাবি জানান। এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনিবার্ণ চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আনোয়ার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক, ইন্সপেক্টর জয়নাল আবেদীন, ইন্সপেক্টর মিজানুর রহমান (তদন্ত)সহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও নিহতের স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে ঈদুল ফিতরের দিন ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহের অদূরেই আজিমউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের কাছে জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটে। এ হামলায় জহিরুল ইসলাম ও আনছারুল হক নামে দুজন পুলিশ কনস্টেবল, স্থানীয় গৃহবধূ ঝর্ণা রানী ভৌমিক ও আবির রহমান নামে এক জঙ্গি নিহত হয়। আহত হয় আরো আট পুলিশ সদস্য। পুলিশের গুলিতে আহত আরেক জঙ্গি শফিকুল ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ থেকে চিকিৎসা শেষে কিশোরগঞ্জে আসার পথে নান্দাইলে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

Leave a Comment