কাঠালিয়ায় ছেলে ধরা সন্দেহে যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

Spread the love

কাঠালিয়ায় ছেলে ধরা সন্দেহে যুবককে গণধোলাই
দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

ঝালকাঠির কাঁঠালিয়ায় ছেলে ধরা সন্দেহে মিরাজ হোসেন (৩০) নামে এক যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার আওরাবুনিয়া ইউনিয়নের কৈখালি গ্রামের আলফালা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।মিরাজ বরগুনা সদর উপজেলার হুমাউন কবিরের ছেলে। তার শ্বশুরবাড়ি কাঁঠালিয়ার কচুয়া গ্রামে।

ভুক্তভোগী পরিবারের উদ্ধৃতি দিয়ে কাঁঠালিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এনামুল হক জানান, রাত ৮টার দিকে বাইসাইকেলে কৈখালি গ্রামের রাজ্জাক মিয়ার বাড়িতে আসেন মিরাজ। রাজ্জাকের ৮ বছর বয়সী শিশু কন্যা যুথী ঘরের বারান্দায় রাতের খাবার খাওয়ার সময় জানালা থেকে স্প্রে দিয়ে যুথীকে তুলে নিয়ে যাওয়ার সময় ঘরের লোকজন টের পেয়ে ডাক-চিৎিকার শুরু করে। এ সময় মিরাজ যুথীকে ফেলে সাইকেল নিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে এলাকাবাসী তাকে ধরে গণধোলাই দেয়।
পরে তাকে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে আটক রেখে রাত ১০টার দিকে থানায় খবর দেয়া হলে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে ১২টার দিকে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে সেখান থেকে মিরাজকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

ওসি আরও জানান, মিরাজ আসলে ছেলে ধরা বা শিশু পাচারকারী কি-না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। কারণ পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মিরাজ কোনো কথাই বলতে পারেনি। তিনি সুস্থ হলে জিজ্ঞাসাবাদ করে বিস্তারিত জানা যাবে। এ ঘটনায় রাজ্জাকের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

Leave a Comment