কনকনে শীতের মধ্যে বৃদ্ধাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে পাশবিক নির্যাতন

Spread the love

ডেস্ক : ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে গাছের সঙ্গে বেঁধে এক বৃদ্ধাকে পাশবিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় তিন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জানা যায়, গতকাল শনিবার রাতে উপজেলার পূর্ব নাড়াইল গ্রামে মৃত আব্দুস সাত্তারের স্ত্রী সফুরা খাতুনকে (৫৫) চারা গাছ ভাঙার সন্দেহে রাত ১১টায় বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে আসে পাশের বাড়ির সিরাজুল ইসলামসহ তার পরিবারের লোকজন। সেখানে তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাতভর নির্যাতন করা হয়।

সফুরার ভাই রইছ উদ্দিন বলেন, ‘চারা গাছ ভাঙার কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আমার বোনকে মারধর করা হয়েছে। তার দুই হাতে রশি দিয়ে নারিকেল গাছের সাথে বেঁধে রেখেছিল। কনকনে শীতের মধ্যে আমার বোনকে খোলা আকাশের নিচে রেখে রাতভর নির্যাতন করেছে। ’

সিরাজুলসহ তার পরিবারের লোকজন বলেন, ‘শনিবার রাতে চারাগাছ ভাঙার সময় সফুরা খাতুনকে আটক করে বেঁধে রেখেছি।’

বৃদ্ধা সফুরা খাতুনকে নির্যাতনের সংবাদ পেয়ে আজ রোববার দুপুরে হালুয়াঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সিরাজুল ইসলামসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে। আহত সফুরা খাতুনকে উদ্ধার করে হালুয়াঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে পুলিশ। সফুরার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন কর্মরত চিকিৎসক। হালুয়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘ঘটনার সংবাদ পেয়ে আমি দ্রুত পুলিশ পাঠিয়ে আহত মহিলাকে উদ্ধারসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছি। আহত সফুরার ছেলে জাকির হোসেন বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন।’

Leave a Comment