আটঘর-কুড়িয়ানা-নবগ্রাম-বিনয়কাঠি-কড়াপুর-বরিশাল সড়কে যাত্রীদের চরম ভোগান্তি

Spread the love

আটঘর-কুড়িয়ানা-নবগ্রাম-বিনয়কাঠি-কড়াপুর-বরিশাল সড়কে যাত্রীদের চরম ভোগান্তি
ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ
আটঘর-কুড়িয়ানা-নবগ্রাম-বিনয়কাঠি-কড়াপুর-বরিশাল সড়কে আলফা মাহিন্দ্রা চলাচল না করায় যাত্রীদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এমনিতেই বর্ষাকাল তারপর সড়কে ভোগান্তি এ যেন যাত্রীদের নিত্ত নৈমত্তিক ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে। কে দেখবে এ সকল ভোগান্তি। ঝালকাঠির ভীমরুলী গ্রামে ভাসমান পেয়ার বাজার দেখতে কিছুদিন আগে মার্কিন রাস্ট্রদূত আল রবার্ট মিলার এসে বিমুগ্ধ হলে এ নিয়ে বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। তখন থেকেই এই অবহেলিত জায়গায় ভাসমান পেয়ারা বাজার দেখতে হাজার হাজার মানুষ দল বেঁধে আসছে বিভিন্ন এলাকা থেকে পর্যটক হিসেবে। এ জন্য তারা বেছে নিচ্ছে সহজ পথ। যারা বরিশাল থেকে পেয়ারা বাগান অথবা আটঘর কুড়িয়ানা যেতে চায় তারা একটি মাহিন্দ্র আলফা গাড়ী রিজার্ভ করে যান এতে করে তাদের সময় অনেক বেচে যায়। ঐ পথ চলাচলকারীদের সাথে আলাপকালে অনেক অভিযোগ ফুটে উঠে। বর্তমানে নিজেদের মনোমালিণ্যের কারনে বরিশাল থেকে আলফা মাহিন্দ্রা ঝালকাঠি জেলা অপর পাড় কড়াপুর স্টীল ব্রীজের পূর্ব পাড়ে এবং ঝালকাঠি থেকে বরিশাল বটতলা ও হাতেম আলী চৌমাথাগামী যাত্রীদের ঝালকাঠির কল্যাণকাঠি স্টীল ব্রীজ নেমে প্রায় অর্ধ কিলোমিটার হেটে বরিশাল অংশের আলফা মাহিন্দ্রতে উঠতে হয়। যা বয়স্ক নারী-পুরুষ, শিশু ও রোগীদের অত্যন্ত কষ্টসাধ্যের ব্যাপার। কয়েকজন শিক্ষার্থীর সাথে আলাপকালে তারা জানান তাদের বসত বাড়ি বরিশালের অংশে, হলেও তাদের ঝালকাঠির বিনয়াকাঠি শেরেবাংলা ডিগ্রি কলেজে পড়তে যেতে হয়। কিন্তু বর্ষাকালে সরাসরি মাহিন্দ্র আলফা বন্ধ থাকায় তাদের ভোগান্তির শেষ নেই কারন তারা তাদের ইচ্ছেমতো কম খরচে যেখানে সেখানে নামতে পারে। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী বলেন, তিনি বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন। পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিন বলেন তিনি বিষয়টি জানেন না তবে যাত্রীদের জিম্মি করে কাউকে কোন সুবিধা নিতে দিবেন না।

Leave a Comment